যে ম্যাচ বদলে দিয়েছিল মেসির ভাগ্য

খেলাধুলা

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে আজ টটেনহামের বিপক্ষে মাঠে নামবে বার্সালোনা। আর এই ম্যাচে মাঠে নামার আগে মেসির অতিত জীবনের একটি কথা সবার সামনে নিয়ে এসেছেন টটেনহাম কোচ পচেত্তিনো।

সময়টা ২০০৫ সাল। পচেত্তিনো তখন এস্পানিওলে খেলেন। আর সেই সময়ে এস্পানিওলে যোগ দেয়ার খুব কাছাকাছি ছিল মেসি। চুক্তি প্রায়ই নিশ্চিত হয়েই গিয়েছিল। কিন্তু শেষ মুহুর্তে একটি ম্যাচ সব কিছুর ইতি ঘটিয়ে দেয়।

পচেত্তিনো বলেন, “আমি যখন এস্পানিওলে ছিলাম, তখনই তার সম্পর্কে শুনতে পাই। বার্সালোনা একাডেমির একটা ছোট বালক অনেক ভালো খেলে। সেখানে আর্জেন্টিনা থেকে যখন বার্সায় আসে তখন তার বয়স ১৩। তারপর আমি শুনতে পাই সে এস্পানিওলে যোগ দেয়ার খুব কাছাকাছি আছে। সেই সময়েই গাম্পার ট্রফিতে বার্সালোনা মুখোমুখি হয়েছিল জুভেন্টাসের। আর ঐ ম্যাচে খেলেছিলেন মেসি।”

“সেই ম্যাচে মেসি অসাধারন খেলেছিল। তার খেলা দেখে বার্সালোনা তাকে রেখে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। ফলে তার আর এস্পানিওলে আসা হয়নি।”

“সুতরাং, যদি আপনি ইতিহাসের দিকে তাকান, তাহলে হয়তো যদি সে গাম্পার ট্রফির সেই ম্যাচটি না খেলত তাহলে সে এস্পানিওলের সবচেয়ে বড় তারকা হত। হয়োতো এস্পানিওল এখন বার্সালোনার মত হত। আমরা তাকে সতীর্থ হিসেবে পেতাম এবং আমি তার কোচ হতাম। হয়তো এখনো আমি এস্পানিওলের কোচই থাকতাম।”

উল্লেথ্য, ২০০৯ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত এস্পানিওলের কোচ ছিলেন পচেত্তিনো।